টুইট কেন ১৪০ অক্ষরের বেশি নয়?

টুইটার সারা বিশ্বে মাইক্রোব্লগিং সাইট হিসেবে পরিচিত। এখানে ফেসবুক বা গুগল প্লাসের মতো বড় বড় পোস্ট দেয়া যায় না। খুবই সংক্ষিপ্ত পোস্ট দিতে হয় এখানে। নির্দিষ্ট করে বললে, টুইটারে প্রতিটি পোস্ট হতে হবে ১৪০ ক্যারেক্টার বা অক্ষরের মধ্যে।

টুইটারের অনেক ব্যাবহারকারীই এটিকে টুইটারের সীমাবদ্ধতা বলে অভিযোগ করেছেন। তারা টুইটের (টুইটারের পোস্ট) আকার আরো বড় করার দাবি জানিয়েছেন। কিন্তু টুইটারে কেন এ সীমাবদ্ধতা? টুইটারের সহ-প্রতিষ্ঠাতা ও সিইও জ্যাক ডোরসে বিষয়টি ব্যাখ্যা করেছেন। টুইটারের এ ‘সীমাবদ্ধতা’র পাঁচটি কারণ ব্যাখ্যা করেছেন তিনি।

১. টুইটার আসলে সংক্ষিপ্ততা এবং সময়ে বিশ্বাসী। মানে যখনই ঘটনা, তখনই টুইট।এখন টুইটার যদি ১৪০ অক্ষরের বেশি টুইটের অনুমতি দেয়, তাহলে ছোট ছোট টুইটের পরিবর্তে মানুষকে বড় বড় রচনা পড়তে হবে যেটা টুইটের ধারাবাহিকতা নষ্ট করবে।

২. টুইট যদি ১৪০ অক্ষরের বেশি হয়, তাহলে টুইটারকে আরেকটি ফেসবুকের মতো মনে হবে। প্রতিষ্ঠার ১১ বছর পর এসে ফেসবুকের একটি স্বতন্ত্র চেহারা বা ধরন আছে। টুইটার এখন যেরকম আছে, তাতেই ভালো আছে। টুইটের আকার বড় করার চেয়ে এর কার্যকারিতা আরো বাড়ানোর দিকে নজর দেয়া উচিত টুইটারের।

৩. টুইটের আকার আরো বড় করার চেয়ে এটা নিশ্চিত করা বেশি জরুরি যে, ছবি বা কোনো লিংক যাতে ক্যারেক্টার লিমিটের আওতায় না পড়ে। এতে ব্যাবহারকারীরা আরো সন্তুষ্ট হবে। তারা তাদের বার্তা আরো স্পষ্টভাবে তুলে ধরতে পারবে। এটা করতে পারলে টুইটার  ফেসবুকের চেয়েও জনপ্রিয় হতে পারে।

৪. টুইটার যদি টুইটের আকার বড় করে তাহলে এর অবস্থা হবে গুগল প্লাসের মতো। মানে এর নিজস্ব কোনো ধরন আর থাকবে না। এটা একটা পরিচয় সঙ্কটে পড়বে তখন। প্রত্যেকেরই একটা নিজস্ব সত্তা আছে। যেমন নতুন নতুন মানুষ বা বন্ধু বান্ধবের সাথে সংযোগ করে দিয়ে ফেসবুকের আলাদা একটা চরিত্র দাঁড়িয়ে গেছে। ইন্সটাগ্রাম ছবি শেয়ারের জন্য বিখ্যাত, টাম্বলার ব্লগিংয়ের জন্য অসাধারণ আর টুইটার এক বাক্যে মূল তথ্যটা শেয়ার করার  জন্য সুপরিচিত। কিন্তু টুইটার যদি টুইটের আকার বড় করে, তাহলে একে গুগল প্লাসের ভাগ্য বরণ করে নিতে হবে।  ৫. এখন তো ফেসবুকের মাধ্যমে টুইটারেও পোস্ট করা যায়। ফেসবুকের কোনো পোস্ট যদি ১৪০ অক্ষরের বেশি হয়ে যায়, তাহলে টুইটার সয়ংক্রিয়ভাবে ফেসবুকের ওই পোস্টটির লিংক যুক্ত করে দেয়। যদিও এটা ব্যাবহারকারীদের খুব একটা সুবিধার নয়। কিন্তু ১৪০ অক্ষরের মধ্যেই টুইট করতে হবে, এজন্য কিন্তু বেশিরভাগ মানুষই ঠিক যথার্থ বার্তাটিই অল্প কথায় দিয়ে দেয়। অযথা বাক্য খরচ করে না।  সূত্র:dailyo.in

কমেন্টসমুহ
Secret Diary Secret Diary

Top