ল্যাপটপে নেট সংযোগ

হাতে আছে ল্যাপটপ কম্পিউটার অথচ ইন্টারনেট সংযোগ নেই—এমনটা অনেকেই চান না। যেকোনো জায়গায়, যেকোনো অবস্থায় ইন্টারনেট সংযোগ ব্যবহার করতে ল্যাপটপ তো বেশ কাজের। ল্যাপটপ নিয়ে যেহেতু বিভিন্ন স্থানে ঘোরা হয়, তাই এর সঙ্গে দরকার তারহীন ইন্টারনেট সংযোগ।
দূরের যাত্রায় যাচ্ছেন, একটি মডেম সঙ্গে রাখুন। বাজারে দুই ধরনের ইউএসবি মডেম পাওয়া যায়। মুঠোফোন সেবাদাতা প্রতিষ্ঠানগুলোর সিম ব্যবহার করে ইন্টারনেট সংযোগ নিতে পারেন। এখানে উল্লেখযোগ্য গ্রামীণফোন, রবি, এয়ারটেল, টেলিটক, বাংলালিংক ও সিটিসেল। নবায়নের মাধ্যমে আলাদা মেয়াদ ও প্রয়োজন অনুযায়ী নির্দিষ্ট গতির ইন্টারনেট–সেবা পাবেন এখান থেকে। মডেমের মাধ্যমে আরও একভাবে ইন্টারনেট সংযোগ পাওয়া যাবে। এ ক্ষেত্রে সিমকার্ডের প্রয়োজন পড়বে না। এসব সেবা দেয় বাংলালায়ন ওয়াইম্যাক্স, কিউবি বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান। এগুলোর মধ্যে কিছু আছে পোস্টপেইড, কিছু আছে প্রি–পেইড। মডেমের কিছু সুবিধা আছে। এটি বহনযোগ্য হওয়ায় যেকোনো ল্যাপটপ কম্পিউটারেই ব্যবহার করা যায়। যেখানে ঘুরতে যাচ্ছেন, সেখানে ল্যাপটপের ব্যবস্থা থাকলে মডেমটা সঙ্গে রাখুন। তাহলেও কাজ চলবে।
বাসাবাড়ি কিংবা ব্যক্তিগত কাজে ব্যবহারের জন্য ব্রডব্যান্ড সংযোগই ভালো। শহরের প্রায় সব এলাকাতেই তারের মাধ্যমে এ সংযোগ নেওয়া যায়।
স্কুল, কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয়, অফিস, কিংবা নিয়মিত বন্ধুদের আড্ডা জমে ওঠে—এমন স্থানে ইন্টারনেট সংযোগের ক্ষেত্রে রাউটার ব্যবহার করতে পারেন। একই সময়ে অনেকে একসঙ্গে এ সংযোগ পাবেন। তবে এ কাজে ইন্টারনেট সংযোগের একটি উৎস লাগবে। সেটা হতে পারে ব্রডব্যান্ড কিংবা ইউএসবি মডেম। উৎসস্থল থেকে রাউটারের মাধ্যমে সব ল্যাপটপে সংযোগ ছড়িয়ে পড়বে।
বাজারে দুই ধরনের রাউটার আছে। একটি ইনডোর, অন্যটি আউটডোর। ইনডোর রাউটারের মাধ্যমে একই সঙ্গে প্রায় ১০ জন ইন্টারনেট সংযোগ পাবেন। সঙ্গে রাখতে পারেন পকেট রাউটার। এটির মাধ্যমে একই সময়ে ব্যক্তিগত ল্যাপটপ, নোটবুক, ট্যাব কিংবা স্মার্টফোনে ইন্টারনেট সংযোগ নিতে পারবেন। আর দ্রুতগতির আউটডোর রাউটারের মাধ্যমে একসঙ্গে অনেকেই ইন্টারনেট সংযোগ পাবেন।

কমেন্টসমুহ
Secret Diary Secret Diary

Top