ইন্টারনেটের অদ্ভুত ও ভীতিকর অংশের নাম ‘ডার্ক ওয়েব’

সোশাল মিডিয়া ‘রেডিট’-এ খুব সাধারণ প্রশ্ন করলেন একজন, ‘আপনার ডিপ ওয়েব স্টোরিটা কি?’ মূলত তিনি ইন্টারনেটে মানুষের অদ্ভুত ও বিদঘুটে অভিজ্ঞতার কথা জানতে চেয়েছিলেন। কিন্তু সবাই বুঝে নিয়েছেন ইন্টারনেটের অন্ধকার অংশের কথা। এই অংশটি ‘ডিপ ওয়েব’ বা ‘ ডার্ক ওয়েব’ নামেই বেশি পরিচিত।

কিছু বিশেষায়িত সার্ভিস রয়েছে যা মানুষের আইপি অ্যাড্রেস লুকিয়ে রাখে। এই ঠিকানাগুলো সহজে খুঁজেও পাওয়া যায় না। পাশাপাশি এই সার্ভিস থেকে ইন্টারনেটের অন্ধকার অংশে প্রবেশ করা যাবে। ‘সিল্ক রোড’ ডার্ক ওয়েবের একটি প্রোটোটাইপিক্যাল উদাহরণ। তবে এর প্রতিষ্ঠাতারা বর্তমানে জেলে বন্দি রয়েছেন।

ডার্ক ওয়েব নিয়ে অনেকে অনেক অভিজ্ঞতার কথা লিখেছেন রেডিট-এ। দেখে নিন কিছু নমুনা।

১. ডার্ক ওয়েব শুনলেই কিছুটা ভয় লাগে। কিন্তু অনেক সময়ই এটি ক্ষতিকর নয়। অনেক সময় ফালতু বিষয়েও ডার্ক ওয়েব ব্যবহার করে মানুষ।

২. একজন জানালেন, ডার্ক ওয়েব ব্যবহার করে নিউ ইয়র্খের একটি পে-ফোনের মাধ্যমে কথা বলতে সক্ষম হয়েছেন।

৩. সেখানে কিছু অদ্ভুত ফোরাম পাবেন। যেমন- একটি ফোরাম একটি রেকর্ডিং শেয়ারিং করে। ওই রেকর্ড বলে দেয় একটি ট্রেনের পরের স্টপেজটি কোথায়?

৪. কিন্তু কিছু ভয়ের ঘটনা ঘটে। যেমন- ডার্ক ওয়েব ব্যবহারের যে সার্ভিস রয়েছে, তাতে কারো আইপি অ্যাড্রেস পাওয়া যায় না বলা হয়। কিন্তু অনেক ব্যবহারকারী বিষয়টির ব্যতিক্রম দেখেছেন। যেমন- এক ব্যবহারকারী ডার্ক ওয়েবে একটি অনলাইন সাইটের সূত্র ধরে কিছু দূর এগোলেন। কিছু দূর যাওয়ার পরই একটি মেসেজ আসলো তার কাছে। সেখানে লেখা ছিল, ‘আমরা আপনার ওপর খেয়াল রাখছি’। পরে যখন তিনি সেখান থেকে বেরিয়ে এলেন, তার কম্পিউটারে প্রচুর পরিমাণ এইচটিএমএল ফাইল এবং টিআইএফএফ ইমেজ চলে আসলো। একটি ফাইল খোলার পর তাতে আগের মেসেজটি পাওয়া গেলো। আর একটি ইমেজ খোলার পর তাতে দেখা গেলো কিছু মিলিটারি এবং মেডিক্যাল সংশ্লিষ্ট ছবি যা ফ্যাক্স করে পাঠানো হয়েছিল।

আরেক ব্যবহারকারী জানালেন, ডার্ক ওয়েবের একটি ভিডিওতে মন্তব্য করলেন তিনি। পরে কেউ একজন তার মন্তব্যের পাল্টা মন্তব্য করলো, ‘আপনি খুব বুদ্ধিমান মিস্টার …। যে নামটি লেখা হয়েছে তা ওই ব্যবহারকারীর কাছের মানুষরা ছাড়া কেউ-ই জানেন না।

৫. অদ্ভুত জিনিসের ক্রয়-বিক্রয় চলে ডার্ক ওয়েবে। যেমন- এক ব্যবহারকারী দেখলেন, সিল্ক রোডে সার্জারির কিট বিক্রি হবে, তাও প্রচুর পরিমাণে।

অন্য এক ব্যবহারকারী লেখালেখির কাজে গণ্ডারের শিং সম্পর্কে জানতে সার্চ দিলেন। একজন তাকে মেসেজ দিলেন, তার কাছে দুটো গণ্ডারের শিং রয়েছে যা বিক্রি হবে।

৬. আবার খুব সাধারণ জিনিস বিক্রি হয় যা সাধারণভাবেই বিক্রি করা যায়। যেমন- এক জার্মান ভদ্রলোক জনপ্রিয় খাবার প্রিৎজেলস বিক্রি করেন।

কমেন্টসমুহ
Secret Diary Secret Diary

Top