আসছে বিশ্বের বৃহত্তম ও শক্তিশালী ক্যামেরা

ফটোগ্রাফিক ম্যানিয়াকদের জন্য সুখবর এনেছেন গবেষকরা। শুরু হয়ে গেছে বিশ্বের সব থেকে বড় ক্যামেরা তৈরির কাজ। এই কাজে নেমেছেন মেনলো পার্কের গবেষকরা। জানা গেছে এই ক্যামেরা তৈরির কাজ বেশ অনেকটাই এগিয়ে গেছে। বিজ্ঞানীরা এটির নাম দিয়েছেন, “লার্জ সিনপটিক সার্ভে টেলিস্কোপ” বা ‘LSST’। জানা গেছে, ক্যামেরাটির আয়তন এমন যে সেটিকে একটি ছোট গাড়ির সঙ্গে তুলনা করা যেতে পারে।
ক্যামেরাটির লেন্স ৩.২ গিগাপিক্সেল। শুধু বিশ্বের মধ্যে সব থেকে বড়ই নয় এই ক্যামেরা, সঙ্গে সর্বাধিক শক্তিশালীও বটে। তবে ক্যামেরাটির কাজ এখনাে যা বাকি রয়েছে তাতে বৈজ্ঞানিকদের অনুমান ২০২২ সালে লঞ্চ করবে ক্যামেরাটি। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ডিপার্টমেন্ট অফ এনার্জিস্ SLAC ন্যাশনাল অ্যাক্সিলেরেটার ল্যাবরেটরিতে ক্যামেরাটি লঞ্চ করার পরিকল্পনা নেয়া হয়েছে। জানা গেছে মহাকাশেরও সুস্পষ্ট ছবি তোলার ক্ষমতা থাকবে এই ক্যামেরায়। মূলত সেই কাজের জন্যই তৈরি করা হচ্ছে ক্যামেরাটিকে। ফোটোগুলো থেকে বিশ্বব্রহ্মাণ্ডের বহু অজানা রহস্যের কিনারা পাওয়া যাবে বলেও বিশ্বাস জ্যোতির্বিজ্ঞানীদের।
হাবল্ স্পেস টেলিস্কোপের মতোই কাজ করবে LSST। তবে পার্থক্য রয়েছে হাবল্ স্পেস টেলিস্কোপের সঙ্গে। হাবলের মত মহাকাশে ভেসে বেড়াবে না এই ক্যামেরা। মাটিতেই LSST কে বসানো থাকবে। LSST কে বসানোর পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে দক্ষিণ অ্যাফ্রিকার দেশ চিলিতে। এক জায়গায় LSST কে বসিয়েই, লেন্স জুম ইন অ্যান্ড জুম আউট করে মহাকাশের স্পষ্ট ছবি তুলে নেওয়া যাবে।
ক্যামেরাটি তৈরি করতে গিয়ে প্রথমে বেশ আর্থিক বাধা পেরোতে হয়েছে বৈজ্ঞানিকদের। তবে এবছরের জানুয়ারিতে ক্যামেরা তৈরির ফান্ড জোগাড় করেছে SLAC ।

কমেন্টসমুহ
Secret Diary Secret Diary

Top