চার জিবি র‍্যামের ফোন!

একটা সময় ছিল যখন মোবাইল ফোনে এক জিবি র‍্যামের কথা শুনলেই অনেকে রীতিমতো চমকে যেতেন। কিন্তু এখন চার জিবি র‍্যামের ফোনও হাতের নাগালেই চলে আসছে। চীনের স্মার্টফোন নির্মাতা ওয়ানপ্লাস ঘোষণা দিয়েছে তাদের পরবর্তী স্মার্টফোন ওয়ানপ্লাস টুতে থাকবে চার জিবি র‍্যাম। র‍্যান্ডম অ্যাকসেস মেমোরি বা র‍্যাম হচ্ছে কম্পিউটারে তথ্য-উপাত্ত সংরক্ষণের মাধ্যম।
পরবর্তী প্রজন্মের এলপিডিডিআর ৪ মেমোরি যুক্ত ওয়ানপ্লাস টু স্মার্টফোনটি ২৭ জুলাই ঘোষণা দেবে ওয়ানপ্লাস। বর্তমানে শুধু স্যামসাংয়ের গ্যালাক্সি এস ৬ ও এস ৬ এজে ডিডিআর ৪ র‍্যাম রয়েছে।
বাজারে আসুসের জেনফোন ২ স্মার্টফোনেও চার জিবি র‍্যাম রয়েছে। ৬৪ বিট প্রসেসরে দ্রুতগতিতে পরবর্তী প্রজন্মের অ্যাপ্লিকেশনগুলো চালাতে এই র‍্যামের প্রয়োজন পড়ে।
এলপিডিডিআর ৪ র‍্যাম কেন প্রয়োজন? ওয়ানপ্লাস কর্তৃপক্ষ বলছে, র‍্যাম বেশি থাকলে ব্যাটারির দক্ষতা বাড়ে এবং কম শক্তি খরচ হয়। এর অর্থ হচ্ছে প্রয়োজনীয় অ্যাপ দীর্ঘক্ষণ ব্যবহারেও চার্জ বেশি ফুরায় না। এ ছাড়া এলপিডিডিআর থ্রির তুলনায় ডিডিআর ফোর র‍্যাম ব্যবহারে দ্বিগুণ ব্যান্ডউইথ পারফরম্যান্স পাওয়া যায়।
ওয়ান প্লাস টু স্মার্টফোনটির দাম ৪৫০ মার্কিন ডলারের কম হবে বলেও জানিয়েছে ওয়ানপ্লাস কর্তৃপক্ষ। দাম কম হওয়ায় এই স্মার্টফোনটি অ্যাপল, স্যামসাং, এইচটিসিকে টেক্কা দিতে পারবে বলে মনে করছে ওয়ানপ্লাস। প্রসঙ্গত, ইতিমধ্যে ‘ফ্ল্যাগশিপ কিলার’ ফোন হিসেবে স্বীকৃতি পেয়েছে ওয়ানপ্লাসের তৈরি স্মার্টফোন।

ওয়ানপ্লাস টু স্মার্টফোনটিকে অ্যাপল ও স্যামসাংয়ের সঙ্গে প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নামাতে চার জিবি র‍্যামের সঙ্গে কোয়ালকমের তৈরি নতুন ৬৪ বিটের অক্টাকোর স্ন্যাপড্রাগন ৮১০ প্রসেসর যুক্ত করছে চীনা প্রতিষ্ঠানটি। ধাতব কাঠামোর এই স্মার্টফোনটির সঙ্গে অ্যাপলের টাচ আইডি সেন্সরের চেয়েও দ্রুতগতির ফিঙ্গারপ্রিন্ট স্ক্যানার যুক্ত করার কথা বলেছে ওয়ানপ্লাস। (টেক রাডার, দ্য নেক্সট ওয়েব)

কমেন্টসমুহ
Secret Diary Secret Diary

Top