যত্নে থাকুক শখের শাড়ি

বাঙালি নারী আর শাড়ি একে অপরের সঙ্গে অঙ্গাঅঙ্গিভাবে জড়িত। নারীতে বারহাত একখানা শাড়ির সৌন্দর্য্যের কাছে যেন অন্যসব পোশাক কিছুই না। আর তাই তো বাঙালি নারীদের কাছে শাড়ি খুব শখের একটি পোশাক। কিন্তু এই শখের পোশাকটি যেন-তেন ভাবে ফেলে রাখলে চলবে না। সঠিক যত্নে পুরোনো ও দামি শাড়িগুলো অনেকদিন পর্যন্ত ভালো রাখা সম্ভব। তাছাড়া বর্ষার এই মৌসুমে আদ্র আবহাওয়া যত্নে রাখা শাড়িও নষ্ট করে দিতে পারে। তাই ঠিক এই সময়টাতে দরকার শাড়ির উপযুক্ত যত্ন।

– কাপড় রাখার স্থানটি শুকনো হতে হবে, নইলে ছত্রাক সংক্রমণ ঘটবে সহজেই।

– ব্যবহৃত শাড়ি ৩ মাস অন্তর ও অব্যবহৃত শাড়ি ৬ মাস অন্তর বের করে রোদে দিতে হবে।

– বিশেষ করে মৌসুমের এই সময়ে আকাশে কড়া রোদের খেলা চলে তখন অন্তত একঘণ্টা করে শখের শাড়ি শুকিয়ে নিন। আদ্র ভাব চলে যাবে।

– শাড়ির ভাঁজে ন্যাপথলিন, কালোজিরা, নিমপাতা ইত্যাদি দিয়ে রাখুন, এতে পোকায় কাটবে না।

– আলমারি বা ট্রাংক যেখানেই শাড়ি রাখুন না কেন, সেখানে যেন তেলাপোকা বা ইঁদুর ঢুঁকতে না পারে।

– কাঠের আলমারিতে শাড়ি রাখলে তা মাঝে খেয়াল করতে হবে আলমারি ঘুণে ধরেছে কি-না, নতুবা শাড়ি কেটে যেতে পারে।

– স্টিলের আলমারিতে মরিচা লেগে শাড়ি নষ্ট হতে পারে। তাই আলমারি খুলে আদ্র ভাব থাকলে শুকনা কাপড়ে মুছে রাখতে পারেন।

– বাইরে থেকে এসে কিছুক্ষণ বাতাসে রেখে শাড়ির ঘাম শুকিয়ে নিন, নতুবা দাগ পড়তে পারে।

– আলমারিতে শাড়ি রাখার আগে অবশ্যই ঝেড়ে মুছে নিবেন।

– মসলিন বা কাতান শাড়ির ক্ষেত্রে অবশ্যই সাদা কাগজ ব্যবহার করতে হবে। এসব শাড়িতে ড্রাই ওয়াশ না করে পলিশ বা কাঁটা ওয়াশ করানোই ভালো।

– সুতি শাড়ি ইস্ত্রি করে কিছুক্ষণ বাতাসে রেখে তুলে রাখুন, অনেকদিনের জন্য রাখতে হলে মাড় না দেয়ায় ভালো।

– জর্জেট ও শিফন শাড়ি ধুয়ে পানি ঝরিয়ে নিন। ভালোভাবে শুকিয়ে গেলে শাড়ি রোল করে রাখুন এবং অবশ্যই এই শাড়িগুলোতে নিম পাতা বা কালো জিরা দিয়ে রাখুন।

কমেন্টসমুহ
Secret Diary Secret Diary

Top