হানিমুনের ছোট্ট ৬ টি কাজ রোমান্সকে করবে আরও মধুর

বিয়ের পর মধুচন্দ্রিমায় দুজন দুজনের সাথে সময় কাটানো নিয়ে অনেক স্বপ্ন দেখে থাকেন প্রায় প্রত্যেকেই। বিয়ের পরপরই দুজন দুজনের সাথে তাল মিলিয়ে চলা এবং মানিয়ে নেয়ার যুদ্ধটাকে একটু মধুর করে তোলার অন্যতম উপায় হচ্ছে হানিমুন। অনেকেই হানিমুনে অনেক কিছু করার পরিকল্পনা করে থাকেন কিন্তু দুজন দুজনকে বুঝতে না পারার কারণে অনেক সমস্যার সৃষ্টি হয়। কিন্তু কিছু ছোট্ট কাজ রয়েছে যা করলে কেউই অপছন্দ করবেন না, বরং দুজন দুজনকে সম্পূর্ণ অন্যভাবে আবিষ্কার করতে পারবেন। এবং আপনাদের রোমান্স আরও মধুর হয়ে উঠবে।

১) দুজনে একসাথে সূর্যাস্ত এবং সূর্যোদয় দেখুন

বলা হয় গোধূলির আবীর রাঙ্গা আলয় মানুষকে অন্যরকম দেখায় আর সূর্যোদয়ের নরম কোমল আলো পাষাণের হৃদয়েও প্রেমের সৃষ্টি করতে পারে। এই দুটি সময় পৃথিবী জুড়ে অন্য ধরণের এক পবিত্রতা ছড়িয়ে থাকে। হানিমুনে গিয়ে এই দুটো সময়ে নিজের সঙ্গীর হাত ধরে সূর্যের দিকে তাকিয়ে না দেখলে এবং এই আলোয় সঙ্গীর মায়াভরা মুখ না দেখলে জীবনটাই বৃথা।

২) সারপ্রাইজ দিন হানিমুনেও

হানিমুনে দুজনে যা প্ল্যান করে গিয়েছেন তাই করতে হবে এমন কোনো কথা নেই। ছোট্ট কিছু সারপ্রাইজ নিজের ইচ্ছায় সঙ্গীকে দিতেই পারেন। সঙ্গীর পছন্দের সাজে তার সামনে যাওয়া, রুমের মধ্যেই ক্যান্ডেল লাইট ডিনারের ব্যবস্থা করা, পছন্দের গিফট দেয়া ইত্যাদি কাজ ইচ্ছে করলেই করতে পারেন যা আরও বেশী মধুর করে তুলবে আপনাদের রোমান্স।

৩) একে অপরের খাবার অর্ডার করুন

আপনি আপনার সঙ্গীকে যে বুঝতে পারা শুরু করেছেন অথবা একটু হলেও বুঝতে চেষ্টা করছেন তা প্রকাশ করার অন্যতম প্রধান উপায় হচ্ছে সঙ্গীর জন্য টার পছন্দের খাবার অর্ডার করা। এতে সঙ্গী খুবই খুশি হবেন এবং তিনিও আপনাকে বুঝতে চেষ্টা করবেন।

৪) সঙ্গীর পছন্দের কাজ করা

বিয়ে হয়েছে তাই সঙ্গীর পছন্দের দিকে নজর না দিলেও চলবে এমনটি ভাবা উচিত নয় কখনোই, বিশেষ করে হানিমুনের সময়টাতে। হানিমুনের সময়টা দুজনেই অনেক ধরণের অনুভূতির মিশ্রনে থাকেন, এই সময়টাতে ভুল বোঝাবুঝির সমস্যা বেশী হয়। তাই একটু হলেও সঙ্গীর পছন্দের দিকে খেয়াল রাখা জরুরী।

৫) প্রতিটি মুহূর্ত ধরে রাখুন

হানিমুনে গিয়ে যদি নিজেদের ভালো মুহূর্তগুলো ধরেই না রাখতে পারলেন তাহলে স্মৃতি কীভাবে রাখবেন। এছাড়াও যদি শুধু কয়েকটা মুহূর্ত ধরে রাখেন তাহলেও পরিপুরনতা আসবে না। ছোট বড় সব মুহূর্তই ধরে রাখার চেষ্টা করুন ছবিতে। পরে এই মুহূর্তগুলোই প্রতিটি দিন মধুর করতে সাহায্য করবে।

৬) নিজের জন্য কিছুটা সময় আলাদা করুন

এতো কিছুর মধ্যেও কিন্তু পুরোটা সময় একজন আরেকজনের সাথে আঠার মতো লেগে থাকবেন তা চিন্তা করবেন না। দুজনের একসাথে কাটানো মুহূর্ত আরও সুন্দর করতে কিছুটা সময় নিজে নিযে উপভোগ করুন। এতে সঙ্গীর চাহিদা বুঝতে পারবেন। তখন সঙ্গীর সঙ্গ আরও বেশী মধুর মনে হতে থাকবে।

সূত্র: bollywoodshaadis

 

কমেন্টসমুহ
Secret Diary Secret Diary

Top