৫ উপায়ে বন্ধ করুন নিজেকে অন্যের সাথে তুলনা করা

আপনার ঈর্ষা, হিংসা, রাগ, কষ্ট এবং দুঃখ এই সকল আবেগের মূলে কোনটি কাজ করে তা রয়েছে জানেন কি? আপনার নিজেকে অন্যের সাথে তুলনা করার সমস্যা। হ্যাঁ, নিজেকে অন্যের সাথে তুলনা করা এক পর্যায়ের মানসিক সমস্যার মধ্যে পড়ে যা আপনার মধ্যে এই ধরণের ক্ষতিকর আবেগগুলো এনে থাকে। মানুষের মনে এই আবেগগুলো তখনই আসে যখন সে দেখতে পায় অন্যের তুলনায় তিনি কতোটা অসুখী। তুলনা করার এই ব্যাপারটি আপনার মানসিক শান্তিও কেড়ে নেয় নিমেষেই। তাই নিজেকে অন্যের সাথে তুলনা করার এই বিষয়টি আজ থেকেই বন্ধ করে দেয়া প্রয়োজন। অন্তত নিজের মানসিক সুখের কথা ভেবে হলেও আজই বন্ধ করুন নিজেকে অন্যের সাথে তুলনা করার এই বিরক্তিকর ব্যাপারটি।

১) সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমগুলো কম ব্যবহার করুন

সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম নির্দোষ বিনোদনের স্থান তা সকলেই জানেন। কিন্তু এটি লোক দেখানোর একটি জায়গা তা মনে হয় খুব ভালো করেই বুঝতে পারেন সকলে। সকলের জীবন এখানে প্রায় উন্মুক্ত, আর এই সকল লোক দেখানো উন্মুক্ত জীবনের এক অংশ দেখে অনেকেই নিজের জীবনের সাথে তুলনা করে হতাশা, ঈর্ষার মতো ক্ষতিকর আবেগে ভোগেন। তাই নিজেকে বিরত রাখুন সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম অতিরিক্ত ব্যবহার থেকে নতুবা নিজের জ্ঞানচক্ষু খুলে বোঝার চেষ্টা করুন এগুলো শুধুই লোক দেখানো।

২) প্রত্যেকটি মানুষের জীবন আলাদা তা বোঝার চেষ্টা করুন

আপনার জীবনের সাথে অন্য কারো জীবন মিলবে না। কখনোই নয়। সৃষ্টিকর্তা আপনাকে আপনার নিজের মতো করে গড়ে তুলেছেন আপনার জীবনটা অন্যের জীবন কাহিনী থেকে একেবারেই আলাদা করে। আপনি কেন শুধু শুধু আরেকজনের জীবন দেখে আফসোস করছেন। কেন ভাবতে পারছেন না হয়তো এমন অনেক কিছুই আপনার জীবনের অংশ যা আপনি যাকে দেখে আফসোস করছেন তার জীবনে নেই। প্রতিটি মানুষই আলাদা গুণাগুণ নিয়ে জন্ম নিয়েছেন। প্রত্যেকেই তুলনাহীন।

৩) নিজের গুণাগুণের দিকে নজর দিন

নিজের মধ্যে যা রয়েছে তা নিয়েই গর্ববোধ করুন। আপনি আরেকজনের গুণাবলী দেখে ঈর্ষান্বিত না হয়ে নিজের গুণের দিকে নজর দিন। নিজের গুণটাকেই সকলের সামনে এমনভাবে প্রতিষ্ঠিত করুন যেন অন্য আরেকজন আপনার গুণের অনুসারী হতে পারেন। অন্যের সাথে নিজেকে তুলনা না করে নিজেকে তুলনাহীন করে তুলুন নিজের গুণাবলী দিয়ে।

৪) নিজেকে বোঝান ‘সবসময় যা দেখা যায় তা সত্যি নয়’

‘নদীর এপাড় কহে ছাড়িয়া নিঃশ্বাস ওপাড়ে সর্ব সুখ আমার বিশ্বাস’- প্রবাদটির কথা মনে আছে? জীবনটা অনেকাংশেই এই রকম। আপনি যার সাথে নিজের তুলনা করে আফসোস করছেন যার উপরের জীবনটা দেখে ঈর্ষা করছেন হতে পারে তার জীবনটা আপনার চাইতেও দুর্বিষহ যা বুকে লুকিয়ে তিনি সকলের সামনে হাসছেন। তাই ওপরটা দেখেই নিজেকে তার সাথে তুলনা করে মন খারাপ করার আগে ভেবে দেখুন ভেতরের কিছুই হয়তো আপনি জানেন না।

৫) নিজেকে ভালোবাসুন

আপনার মধ্যে যা রয়েছে অন্য কারো মধ্যে তা নেই, এই বিষয়টি কিন্তু শুধু বলার জন্য বলা নয়। এটি আসলেই সত্যি। আর এই বিষয়টি উপলব্ধি করতে হলে প্রথমে নিজেকে ভালোবাসতে শিখতে হবে। আপনি নিজেকে অন্যের সাথে তুলনা করে নিজেকেই ছোট করছেন তা বুঝতে হবে প্রথমে। নিজেকে ভালোবাসতে পারলে এই ভুলটি আপনিই করবেন না পুনরায়।

সূত্র: powerofpositivity.

 

কমেন্টসমুহ
Secret Diary Secret Diary

Top