নতুন পোশাক পরার আগে কি ধুয়ে পরা উচিত?

নতুন পোশাক পরতে আমরা সবাই ভালোবাসি। বাজার থেকে ঝকঝকে নতুন, নিখুঁত ভাঁজ করা ও পরিষ্কার পোশাক কিনে এনেই পরে ফেলি, আয়নার নিজেকে বারবার ঘুরয়ে ফিরিয়ে দেখি। কিন্তু এই নতুন পোশাক ধুয়ে পরার কথা কি কেউ একবারও চিন্তা করি? কেনই বা করবো, নতুন পোশাক যে একদম পরিষ্কার! যদি এমনটা ভেবে থাকেন তাহলে জানিয়ে রাখি, আপনার ধারণা একেবারেই ভুল। নতুন পোশাককে আপনি যতটা পরিষ্কার ভাবছেন, সেগুলো আসলে মোটেও তত পরিষ্কার নয়। বরং দোকান থেকে আনা পোশাক না ধুয়ে পরার কারণে আপনি মুখোমুখি হচ্ছে হরেক রকম স্বাস্থ্য সমস্যার? চলুন, জেনে নিই বিস্তারিত।

কেবল দোকান থেকে সদ্য কিনে আনা পোশাকই নয়ম, দর্জির বাড়ি থেকে ফারে পোশাকও আমরা ধুয়ে পরি না। জিনিসটি “নতুন” বলেই আমরা ধরে নিই জিনিসটি পরিষ্কার। তবে মনে রাখবেন, আপনার আগে এই পোশাকটি কেউ পরেনি বলে যে পোশাকটি পরিষ্কার সেটা নয়। তাছাড়া দোকানের পোশাক অনেকেই ট্রায়াল হিসাবেও পরিধান করে থাকেন। নতুন পোশাক না ধুয়ে পরিধান করলে যেসব সমস্যার মুখোমুখি হতে পারেন আপনি সেগুলো হচ্ছে-

  • -পোশাকটি কেউ পরেনি মানে কারো যে হাতের ছোঁয়া লাগেনি তেমনটা নয়। যিনি তৈরি করেছেন, তিনি থেকে শুরু করে যিনি প্যাকেট করেছেন বা দোকানের সেলসম্যান পর্যন্ত বহু মানুষের হাতের ছোঁয়া এতে লেগেছে। আর আপনি কীভাবে নিশ্চিত হচ্ছেন যে এই মানুষগুলোর কোন ছোঁয়াচে রোগ ছিল না আর এই সেই রোগের জীবাণু এই পোশাকে লেগে নেই? তাই অতি অবশ্যই নতুন পোশাক ভালো করে ধুয়ে তারপর পরিধান করুন।
  • -শুধু অন্যের হাতের ছোঁয়াই নয়, পোশাককে নিখুঁত ভাবে আপনার সামনে উপস্থাপন করতে নানান রকম রাসায়নিক ব্যবহার করা হয় যা আপনার ত্বকের জন্য মোটেও ভালো নয়। সামান্য চুলকানি থেকে শুরু করে মারাত্মক র‍্যাশ পর্যন্ত হতে পারে অনেক কিছুই।
  • -নতুন পোশাক থেকে সবচাইতে বেশী যে জিনিসের আশঙ্কা থাকে সেটা হচ্ছে উকুন! বিশেষ করে যেসব দোকানে পোশাক ট্রায়াল করে কেনার ব্যবস্থা আছে সেখানে।
  • -একবার ভাবুন তো, কেউ একজন সারাদিন বাইরে ঘুরে এসে একটি পোশাক ট্রায়াল করলো আর কোন কারণে না কিনেই চলে গেল। কোন এক সময় সেই পোশাকটি আপনি কিনে ফেললেন। তাহলে কি উক্ত মানুষটির শরীরের সব রোগ জীবাণু আপনার শরীরে চলে এলো না?
  • -কেবল নতুন পোশাক নয়, নতুন তোয়ালে থেকে শুরু করে মোজা পর্যন্ত সবকিছুই ব্যবহারের আগে ধুয়ে নেবেন অবশ্যই।

 

কমেন্টসমুহ
Secret Diary Secret Diary

Top