খুব সহজে ঘরেই তৈরি করে নিন “এসেন্সিয়াল অয়েল”

“এসেন্সিয়াল অয়েল” এই নামটা আজকাল বেশ শোনা যায়। বিশেষভাবে রূপচর্চার প্যাকে অথবা ঘরোয়া তৈরি কোন পণ্যে। বাজার ঘুরলে পেয়ে যাবেন বিভিন্ন এসেন্সিয়াল অয়েল। কিন্তু সবসময় দোকানে  এটি পাওয়া যায় না। এর কারণে অনেকই এটি ব্যবহার  করতে পারেন না। এই এসেন্সিয়াল অয়েল ঘরেও তৈরি করে নিতে পারেন। livestrong এসেন্সিয়াল অয়েল তৈরি উপায়টি জানিয়ে দিয়েছে। আসুন তাহলে জেনে নিই এসেন্সিয়াল অয়েল তৈরির উপায়টি।

উপকরণ:

১/২ কাপ বাদাম তেল

ভিটামিন ই

১/৪ কাপ ফলের খোসা কুচি ( কমলা, আঙ্গুর, লেবুর খোসা ইত্যাদি ) অথবা ১ কাপ সুগন্ধী ফুলের পাপড়ি কুচি

একটি পরিষ্কার পাতলা সুতির কাপড়

কাঁচের বোতল

 

যেভাবে তৈরি করবেন:

  • -প্রথমে ফলের খোসাগুলো বা ফুলের পাপড়ি ভাল করে ধুয়ে ফেলুন, যাতে কোন ময়লা না থাকে।
  • -এবার একটি পাত্রে বাদাম তেল, ভিটামিন ই এবং ফলের খোসা/ফুলের পাপড়ি দিয়ে চুলায় দিন। ভিটামিন ই প্রিজারভেটিভ হিসেবে কাজ করবে।
  • -অল্প আঁচে চার থেকে আট ঘণ্টা পর্যন্ত জ্বাল দিন। খেয়াল রাখবেন এই মিশ্রণটি যেন বলক না আসে।
  • -এবার মিশ্রণটি একটি পাতলা কাপড় দিয়ে ছেঁকে জারে ভরে ফেলুন। জারে এসেন্সিয়াল অয়েল তৈরির তারিখটি লিখে রাখুন।
  • -ঠান্ডা হওয়ার পর ব্যবহার করুন।
  • -অন্ধকার জায়গায় এটি রাখা যাবে না। বাতাস আসতে পারে এমন জায়গায় এটি সংরক্ষণ করুন।
  • -৬ মাস পর্যন্ত এটি ব্যবহার করতে পারবেন।

আপনি যদি গোলাপ ফুল ব্যবহার করেন তবে এটি রোজ এসেন্সিয়াল অয়েল হবে। আর যদি ল্যাভেন্ডার এসেন্সিয়াল অয়েল তৈরি করতে চান, তার জন্য আপনাকে ল্যাভেন্ডার ফুল ব্যবহার করতে হবে। আপনি চাইলে যেকোন হারবও ব্যবহার করতে পারেন।

 

কমেন্টসমুহ
Secret Diary Secret Diary

Top