মাইক্রোওয়েভে রান্নার ৫টি প্রয়োজনীয় টিপস

ব্যস্ত জীবনকে সহজ করে তুলতে আমরা নানা ইলেকট্রনিক জিনিস ব্যবহার করে থাকি। এর মধ্যে মাইক্রোওয়েভ অন্যতম। মাইক্রোওয়েভের প্রধান কাজ খাবার গরম করা হলেও, আজকাল অনেক মাইক্রোওয়েভ ওভেনে খাবার রান্না করার অপশন রয়েছে। অল্প সময়ে রান্না হওয়ার কারণে দিন দিন রান্নার জন্য মাইক্রোওয়েভ বেশ জনপ্রিয় হয়ে উঠছে। মাইক্রোওয়েভে রান্নাকে আরও সহজ করে দিবে কিছু কৌশল।
১। সবসময় হাই পাওয়ার সেটিং ব্যবহার করবেন না
সবধরনের রান্নায় হাই পাওয়ার সেটিং ব্যবহার করা উচিত নয়। মাইক্রোওয়েভে তিনটি পাওয়ার সেটিং থাকে হাই, মিডিয়াম এবং লো। একেক ধরণের রান্নায় একেক পাওয়ার সেটিং ব্যবহার করা হয়। রান্নার ধরণ অনুযায়ে সেটিং ঠিক করে নিন। এতে খাবারে স্বাদ এবং গন্ধ অটুট থাকবে। উচ্চ পাওয়ারে সাধারণত তরল জাতীয় খাবার, ঘন খাবার, ব্রেকড পটেটো, স্প্যাগেটি, মাগ কেক ইত্যাদি খাবার রান্না করা হয়। আর লো তাপমাত্রায় নমনীয় খাবার যেমন ডিম, সবজি যা দ্রুত রান্না হয়ে থাকে সেগুলো রান্না করা উচিত।
২। প্লাস্টিকের কনটেইনার ব্যবহার করা
USDA এর মতে, যে সকল প্লাস্টিকের কনটেইনার ওভেন প্রুফ সেসকল জিনিসপত্র রান্নায় ব্যবহার করা উচিত। তারা খাবার এবং পাত্রের মাঝে কিছুটা ফাঁক রাখার পরামর্শ দিয়ে থাকেন।
৩। সবজি রান্নার জন্য ভাল
মাইক্রোওয়েভ খাবারের ময়েশ্চার বজায় রেখে দ্রুত গরম করে থাকে। এতে সবজির সমস্ত পুষ্টিগুণ অটুট থাকে এবং সবজি ভালভাবে সিদ্ধ করে থাকে।
৪। মাইক্রোওয়েভ কনটেইনার টেস্টিং
আপনার ব্যবহার্য পাত্রটি মাইক্রোওয়েভ প্রুফ কিনা তা পরীক্ষা করার জন্য করতে পারেন ছোট একটি পরীক্ষা। পাত্রে এক মগ পানি নিয়ে মাইক্রোওয়েভে এক মিনিট গরম করতে দিন। যদি পানি গরম হয় কিন্তু পাত্রটি ঠান্ডা থাকে, তবে বুঝে নিবেন পাত্রটি মাইক্রোওয়েভ প্রুফ।

কমেন্টসমুহ
Secret Diary Secret Diary

Top