আপনার উজ্জ্বল হাসি ছড়িয়ে পড়ুক সবখানে

সুস্থ দাঁতের সুন্দর হাসি আমরা সবাই ভালোবাসি । দাঁতের যত্নে আমাদের সবারই খুব সচেতন হওয়া উচিৎ । বিভিন্ন কারনের আমাদের এই সুন্দর ঝকমকে দাঁত দিনে দিনে যত্নের অভাবে হয়ে ওঠে হলুদ। পানিতে অতি  মাত্রার আয়রন, ধূমপান, দূষণ , নিয়মিত দাঁত পরিষ্কার করতে অবহেলা -এসব কারণে আমাদের দাঁত হলদেটে হয়ে যায়। কিন্তু, সঠিক যত্নের পাশাপাশি কিছু বিশেষ খাবার আপনার দাঁতকে ঝকঝকে রাখতে গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা রাখে। আসুন জেনে নিই সেসব খাবারের একটি তালিকা –

পনির ও দুধ

পনির ও দুধ দাঁতের এনামেলকে সুরক্ষা করে এবং দাঁতের ক্যাভিটিকে দূরে রাখে। খাবার দুটির প্রোটিন, ক্যালসিয়াম ও ফসফরাস দাঁতের এনামেলের ক্ষয় রোধ করে দাঁতকে মজবুত করে তোলে এবং একই সাথে দাঁতকে সুস্থ রাখার পাশাপাশি দাঁতের উজ্জলতাকে ধরে রাখে।

সাইট্রাস অ্যাসিডযুক্ত ফল

সাইট্রাস অ্যাসিড মুখে স্যালাইভার পরিমাণ বাড়িয়ে দেয়।যেসব ফলে এই এসিডটি আছে যেমন কমলা, আঙ্গুর এগুলো দাঁতের এনামেলকে রক্ষা করে আবার এই ফলগুলোতে প্রচুর পরিমানে পানি থাকায় এসব খাওয়ার ফলে দাঁতের এসিড উৎপাদনকারী ব্যাকটেরিয়াকে পরিষ্কার করে দাঁতকে উজ্জ্বল ও শক্তিশালী করে তোলে।

ওমেগা ৩

ওমেগা ৩ যুক্ত খাবার দাঁতের সুরক্ষায় খুবই কার্যকরী । দাঁত এ বিভিন্ন ধরণের প্রদাহ ও সংক্রমনের ফলে দাঁত অনুজ্জ্বল হয়ে ওঠে এবং অনেক ধরণের রোগের সৃষ্টি হয় । ওমেগা ৩ যুক্ত খাবার দাঁতের এসব প্রদাহ ও সংক্রমন হতে দাঁতকে রক্ষা করে দাঁতকে সাস্থ্যময় করে তোলে । মাছ, মাছের তেল ও বীজ জাতীয় খাবারে ওমেগা ৩ পাওয়া যায় ।

সবজি

গাজর, ব্রকলি বা সবুজ শাক জাতীয় খাবার দাঁত থেকে হলুদ দাগ দূর করে। বিশেষভাবে গাজরে অনেক ক্যারোটিন রয়েছে যা দাঁতকে সুস্থ রাখার জন্য জরুরী।

চিনি বিহীন চুইং গাম

আপনি যদি মিষ্টি জাতীয় খাবারে বেশী আগ্রহী হন তবে তা আপনার দাঁতের জন্য খুবই ক্ষতিকর । তাই মিষ্টির এই আগ্রহ দূর করতে চিনি বিহীন চুইংগাম কাছে রাখতে পারেন । এটি আপনার মুখে স্যালাইভার প্রবাহ বাড়াবে যা আপনার খাদ্য কনা মুখ থেকে সরিয়ে দেয় । মুখের এসিডিটি কমায় এবং সর্বোপরি  দাঁতের এনামেলকে রক্ষা করে দাঁতকে সুস্থ ও সুন্দর রাখে।

ড্রাই ফ্রুট

যেসব ফল শুকিয়ে রাখা যায় যেমন কিসমিস দাঁতকে সাদা রাখতে সাহায্য করে।

পানি ও চিনি বিহীন পানীয়

পানি আপনার মুখ ও দাঁতকে পরিষ্কার রাখার সবচেয়ে সহজতম উপায়। এটি খাদ্য কনাকে মুখ থেকে দূর করে এবং মুখের এসিডিটি উৎপাদনে বাধা দেয় । দাঁতকে ক্যাভিটি থেকে সুরক্ষায় অতীব গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা রাখে । আর কোমল পানীয় খেতে চাইলে অবশ্যই চিনি বিহীন কোমল পানীয় পান করুন দাঁতের সুরক্ষার জন্য ।

দাঁত থাকতে আমাদের সবার দাঁতের মর্যাদা রাখতে হবে নয়তো অকালে আপনি আপনার সুন্দর হাসি হারাতে পারেন। দাঁতকে সুন্দর স্বাস্থ্যময় আর ঝকঝকে রাখতে এই নিয়মগুলো মেনে চালুন আর উজ্জ্বল হাসিতে ভরিয়ে রাখুন আপনার পৃথিবী ।

কমেন্টসমুহ
Secret Diary Secret Diary

Top