ঈদে বেড়ানো

ঈদের ছুটির দিনগুলোতে ঘুরে বেড়াতে পছন্দ করেন অনেকে। পরিবার বা বন্ধুদের নিয়ে যেখানে বেড়াতে যেতে পারেন। উল্লেখযোগ্য স্থানগুলোর পরিচিতি দেওয়া হল :

লালবাগ কেল্লা: মুঘল আমলে স্থাপিত এই দুর্গটি দেশের অন্যতম জনপ্রিয় পর্যটনস্থল। কেল্লার চত্বরে তিনটি স্থাপনা রয়েছে, কেন্দ্রস্থলের দরবার ও হাম্মামখানা, পরীবিবির সমাধি।

আহসান মঞ্জিল: ইসলামপুরে বুড়িগঙ্গা নদীর তীরে আহসান মঞ্জিল। প্রাসাদের চারপাশে সবুজ ঘাসে ছাওয়া মাঠ। ফুলের বাগান।

ফ্যান্টাসি কিংডম: ঢাকার অদূরে আশুলিয়ায় ফ্যান্টাসি কিংডম সারা দিন হই-হুল্লোড়, খেলাধুলা, খাওয়া-দাওয়ার জন্য চমৎকার বিনোদন কেন্দ্র।

নন্দনপার্ক: গাজীপুরের চন্দ্রামোড়ের কাছে আরেকটি বিনোদন কেন্দ্র হচ্ছে নন্দনপার্ক। ভেতরে বিশাল পরিসর। নানা ধরনের রাইড আর বিনোদনের জন্য এটির কদর রয়েছে।

হলিডে ড্রিম পার্ক: ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের নরসিংদীর পাঁচদোনার চৈতাবতে পার্কটির অবস্থান। সবার জন্যই রয়েছে আলাদা সব রাইড।

পানাম নগর: পানাম নগর নারায়ণগঞ্জ জেলার, সোনারগাঁয়ে অবস্থিত একটি ঐতিহ্যবাহী প্রাচীন শহর। ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানির নীল চাষের নির্মম ইতিহাসের নীরব সাক্ষী হয়ে রয়েছে পানামের নীলকুঠি।

উত্তরার দিয়াবাড়ী: যানজট, ভাঙা রাস্তা আর জলাবদ্ধতায় বিরক্ত রাজধানীবাসীর অনেকেই এখন আসছেন উত্তরার দিয়াবাড়ীতে। শরতের বার্তা নিয়ে আসা কাশফুলের ছোঁয়ায় প্রশান্ত হবে প্রাণ।

শিশুপার্ক: রাজধানীর শাহবাগে শিশুপার্কের ভেতরে শিশুদের হরেকরকম খেলার আয়োজন আছে শিশুদের জন্য। নামে শিশুপার্ক হলেও সকল বয়সের মানুষের জন্য এই পার্কটি উন্মুক্ত। প্রতিদিন দুপুর দুইটা থেকে সন্ধ্যা সাতটা পর্যন্ত খোলা থাকে।

চিড়িয়াখানা ও জাতীয় উদ্ভিদ উদ্যান: মিরপুরে জাতীয় চিড়িয়াখানার ভেতরে দেখা মিলবে নানা ধরনের পশুপাখির। এ ছাড়া ভেতরে রয়েছে বসার ভালো স্থান। লেক আর সবুজের দেখা পাবেন এখানটায়। চিড়িয়াখানার পাশেই রয়েছে জাতীয় উদ্ভিদ উদ্যান।

শিশুমেলা: শ্যামলীতে শিশু হাসপাতালের সামনে শিশুদের নানা আয়োজন নিয়ে শিশু মেলা। আছে নানা ধরনের রাইড। শিশু মেলা সকাল ১০টা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত খোলা থাকে।

কমেন্টসমুহ
Secret Diary Secret Diary

Top